রূপসা নদী এবং সেতু

ধরন: নদী
সহযোগিতায়: Nayeem
Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

বিস্তারিত

দক্ষিন-পশ্চিম বাংলাদেশে অবস্থিত রূপসা নদীটির জন্ম হয়েছে ভৈরব এবং আত্রাই নদীর মিলনের ফলে। চালনার কাছে এসে বঙ্গোপসাগরে মিলে যাওয়ার পূর্বে এই নদীটির নাম হয়ে গিয়েছে পশুর। বাংলাদেশের অত্যন্ত জনপ্রিয় রূপসা নদীটি খুলনা শহরের পাশ দিয়ে বয়ে গিয়েছে এবং পশুর নদীর মাধ্যমে মংলা চ্যানেলে বঙ্গোপসাগরে যুক্ত হয়েছে। রূপসা নদীর দুই তীরেই রয়েছে অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য।

বাংলাদেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই নদীটির তীরে অনেক ফিশারিজ, ডকইয়ার্ড, শিপইয়ার্ড, এবং কারখানা অবস্থিত। এই নদীতে মাছ ধরে অনেক জেলে পরিবার তাঁদের জীবিকা নির্বাহ করে। রূপসা নদীর উপর স্থাপিত সেতুটির নাম খান জাহান আলী রূপসা সেতু। এই সেতুটি খুলনা এবং বাগেরহাট জেলাকে সংযুক্ত করার পাশাপাশি দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করছে।


কিভাবে যাবেন

রূপসা নদী এবং সেতু খুলনা শহরে অবস্থিত। খুলনা শহর থেকে রূপসা সেতুর দূরত্ব ১৩.৯ কিলোমিটার। খুলনা থেকে রূপসা সেতুতে যাওয়ার দিক নির্দেশনা পেতে এখানে ক্লিক করুন http://bit.ly/1qrGx8C

কিভাবে পৌঁছাবেন: খুলনা জেলা

ঢাকা থেকে সরাসরি সড়কপথে খুলনায় যেতে পারবেন। ঢাকা ও খুলনার মধ্যে চলাচলকারী বাসগুলোর মধ্যে রয়েছেঃ

১। হানিফ এন্টারপ্রাইজ
গাবতলি টার্মিনাল, ফোনঃ ৮০১৫৩৬৬, ৮০১১৭৫০, ৯০০৩৩৮০
ভাড়াঃ প্রায় ৩৫০/-টাকা

২। গ্রিন লাইন (শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত):
ফকিরাপুল কাউণ্টার, ফোনঃ ৯৩৫৬৫০৬
সায়েদাবাদ কাউণ্টার, ফোনঃ ৭৫৫২৭৩৯
কলাবাগান কাউণ্টার, ফোনঃ ৯১১২২৮৭
ভাড়াঃ প্রায় ৬০০/-টাকা

৩। ঈগল পরিবহন:
গাবতলি কাউণ্টার, ফোনঃ ৮০১৭৬৯৮,৮০১৭৩২০, ০৪৪৯৪৪১৩৬৭৩
ভাড়াঃ প্রায় ৩৫০/-টাকা

ঢাকার সাথে খুলনার নদীপথে যোগাযোগ ব্যবস্থা রয়েছে। ঢাকা ও খুলনার মধ্যে রকেট স্টিমার প্রতি সোমবার, মঙ্গলবার, বৃহস্পতিবার এবং শুক্রবার চলাচল করে।
ফোনঃ ০৪১-৭২৫৭৫৩
ডেকের ভাড়াঃ ১৮০/-টাকা
প্রথম শ্রেণীর কেবিন (দুই আসন বিশিষ্ট), ভাড়াঃ ২৩৮০/-টাকা
প্রথম শ্রেণীর কেবিন (এক আসন বিশিষ্ট), ভাড়াঃ ১১৯০/-টাকা
দ্বিতীয় শ্রেণীর কেবিন (দুই আসন বিশিষ্ট), ভাড়াঃ ১৮৮০/-টাকা
দ্বিতীয় শ্রেণীর কেবিন (এক আসন বিশিষ্ট), ভাড়াঃ ৭২০/-টাকা

ঢাকার সাথে খুলনার রেলপথে যোগাযোগ রয়েছে। ঢাকা ও খুলনার মধ্যে চলাচলকারী ট্রেনগুলোর মধ্যে রয়েছেঃ
সুন্দরবন এক্সপ্রেসঃ শুক্রবার ব্যাতিত প্রতিদিন চলাচল করে;
ভাড়াঃ ২৩৫/- টাকা থেকে ১০৫৬/- টাকা
চিত্রা এক্সপ্রেস: সোমবার ব্যাতিত প্রতিদিন চলাচল করে;
ভাড়াঃ ২২৫/- টাকা থেকে ৭২০/-টাকা

কোথায় থাকবেন

আপনার সুবিধার্থে খুলনায় থাকার জন্য কিছু হোটেল এবং রেস্টহাউজ সম্পর্কে তথ্য প্রদান করা হলঃ
১। সিএসএস রেস্ট হাউজ
যোগাযোগঃ ০৪১-৭২২৩৫৫

২। হোটেল ক্যাসেল সালাম
যোগাযোগঃ ০৪১-৭৩০৭২৫

৩। হোটেল রয়্যাল ইন্টারন্যাশনাল
যোগাযোগঃ ০৪১-৮১৩০৬৭-৯

৪। প্ল্যাটিনাম জুট মিলস লিমিটেড রেস্ট হাউজ, ফোনঃ ০৪১-৭৬২৩৩৫

কি করবেন

খুলনার প্রানকেন্দ্রে অবস্থিত হাদিস পার্কে এসে কিছু সময় কাটাতে পারেন। ভাগ্য ভাল হলে পার্কে কোন প্রদর্শনী দেখার সুযোগ পেয়েও যেতে পারেন। এছাড়া রূপসা সেতুর উপর থেকে নদীর সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারেন।

খাবার সুবিধা

আপনাকে আশেপাশে খাওয়ার হোটেল এবং রেস্টুরেন্ট খুঁজে নিতে হবে। এছাড়া সাথে করে খাবার নিয়েও যেতে পারেন।

ভ্রমণ টিপস

১। খুলনায় আসলে শহরের উত্তরে খান ই সবুর রোডে অবস্থিত নিউ মার্কেটে আসতে পারেন। খুব জাঁকজমকপূর্ণ না হলেও দোতলা এই মার্কেটে বিভিন্ন জিনিস কিনতে পারবেন যেমনঃ কাপড়, ইলেকট্রনিক সামগ্রী, মোবাইল ফোন, সিডি, ভিসিডি ইত্যাদি।
২। খুলনা লাসসি এবং ফালুদা বেশ জনপ্রিয়। এসব পানীয়ের স্বাদ নিতে ডাকবাংলোর মোড় এবং পিকচার প্যালেস মোড়ে অবস্থিত ডিলাক্স অথবা সৌরভ রেস্টুরেন্টে আসতে পারেন।

মানচিত্র

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কথা বলুন

এই মুহূর্তে অনলাইনে না থাকায় আমরা দুঃখিত! কিন্তু আপনি আমাদের ই-মেইল পাঠাতে পারেন। আমরা ২৪ ঘন্টার মধ্যে আপনার প্রশ্নের উত্তর দেব।

আপনার প্রশ্ন বা সমস্যার সহযোগিতা করায় আমরা সর্বদা তৎপর!

ENTER ক্লিক করুন